Logo
নোটিশ :
দেশের সকল জেলা-উপজেলা-থানা,পৌরসভা,বিশ্ববিদ্যালয় ও সরকারি কলেজ পর্যায় সংবাদকর্মী আবশ্যক । প্রচারেই প্রসার, সীমিত খরচে আপনার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দেন আমাদের পত্রিকায় । যোগাযোগ: 019 79 91 08 65 ।
সংবাদ শিরনাম :
ইকরামুল উম্মাহ ফাউন্ডেশন’ হবিগঞ্জ জেলা শাখার পক্ষ থেকে কুরবানির মাংস বিতরণ স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ মগধরা চেয়ারম্যান এস এম আনোয়ার হোসেনের বাহুবলে বাস ও প্রাইভেটকারের সংঘর্ষে ৩ জন নিহত বাহুবল-চুনারুঘাটের সীমান্ত এলাকার খোয়াই নদী থেকে ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার “০৪ বছর ধরে একই গল্প শুনে আসছি, ব্রিজ ঠিক করা হবে: গ্রামবাসী” শেরপুর জেলা হাবিপ্রবিয়ানদের পক্ষ থেকে বন্যার্তদের মাঝে ঈদ সামগ্রী ও ঔষধ বিতরণ হাসানুজ্জামান জিল্লুর ঈদ শুভেচ্ছা নৌবাহীনি কন্টিনজেন্ট সন্দ্বীপ কতুক পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে ১০০ পরিবারের মাঝে ত্রান বিতরন বাহুবলে চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণ কমলনগর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক পদপ্রার্থী আজাদ বাঘার ঈদের শুভেচ্ছা
এম জে এইচ বাতেন এর ছোট গল্প- উদ্দেশ্য প্রেম নয় ব্যবসা

এম জে এইচ বাতেন এর ছোট গল্প- উদ্দেশ্য প্রেম নয় ব্যবসা

উদ্দেশ্য প্রেম নয় ব্যবসা

এম জে এইচ বাতেন

মাহিন মাস্টার্স পাস করা বেকার ছেলে, যদিও তার বাপের প্রচুর ধন-সম্পদ রয়েছে। হাঠাৎ একদিন পড়ন্ত বিকেলে মাহিনের মোবাইলে কল আসে, নাম্বারটি ছিল অচেনা! কল রিসিফ করার পর একটি মেয়ের মিষ্টি কন্ঠসর ভেসে আসে।
মেয়েটি জিজ্ঞাস করল- এটা কোন জায়গা?

মেয়েটির পরের প্রশ্ন- আপনি কি করেন?

মেয়ের মিষ্টি কন্ঠ শুনে মাহিন তর্কে না গিয়ে মেয়েটির সাথে রকমারি আলাপচারিতায় মেতে উঠেন। তারপর প্রতিদিনের ধারাবাহিক আলোচনায় তাদের মধ্যে সু- সম্পর্কের সৃষ্টি হয়। দুইজনেই পরস্পরের প্রতি দূর্বল হতে থাকে। এরপর ভালোলাগা থেকে গভীর ভালবাসা।

সামনে ঈদ মেয়েটি উপহার হিসেবে মাহিনের কাছে নতুন জামা ও টাকা চেয়েছেন। মাহিনের কষ্ট হলেও মেয়েটির চাহিদা পূরণ করেন। মাহিন মাঝে মধ্যে তো মেয়েটির মোবাইল রিচার্জ,ছোটখাটো সমস্যা ও পড়াশুনার টাকা দিয়েই যাচ্ছেন। একদিন মেয়েটি অন্তরঙ্গ ফোনআলাপে মাহিনকে তার বাড়ি সাতক্ষীরায় বেড়াতে প্রস্তাব করে।
মাহিন বলল- আসব তো অবশ্যই।

মাহিনের বাড়ি কিশোরগঞ্জ থেকে মেয়েটির বাড়ি সাতক্ষীরা যেতে প্রায় ২ দিন লেগে যায়। একদিকে টাকা মেনেস করা অন্যদিকে এত দূর যেতে সাহস পাচ্ছিল না মাহিন। শিক্ষিত বেকার ছেলে মাহিন। চাকরির জন্য উঠে পরে লেগেছিল। প্রেমে পরে মুহুর্তের মধ্যে চলাফেরার ধরন বদলে গেল মাহিনের। দিন যাচ্ছিল আর মাহিন মেয়েটির প্রেমে হাবুডাবু খাচ্ছিল।

মেয়েটি হাঠাৎ একদিন রাতে মাহিনকে বলল-
বন্ধু সামনে আর কয়টা দিন পরেই তো বসন্তকাল। আমাদের জীবনে এটাই প্রথম বসন্ত তাই না? মাহিন চল না কক্সবাজার থেকে ঘুরে আসি। মাহিন রাজি হয়ে গেল এবং বলল, আসলে সত্যি বলতে কি জানো অঞ্জিলা ? তোমার আমার মধ্যে প্রেম হয়েছে। কোন সময় বিয়া হবে তাই না?

কিন্তুু অঞ্জিলা তোমাকে তো আমি চিনি না। আমরা যেহেতু কক্সবাজার যাব তাই বলছিলাম কি, তোমার জাতীয় পরিচয় পত্রটি আমাকে ছবি করে অনলাইনে পাঠিয়ে দাও। তারপর থেকে অঞ্জিলা আর মাহিনের কল রিসিফ করে না।আর কিছুদিন পর অঞ্জিলা তার সিমকার্ডটি ও বন্ধ করে দিল।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *