Logo
নোটিশ :
দেশের সকল জেলা-উপজেলা-থানা,পৌরসভা,বিশ্ববিদ্যালয় ও সরকারি কলেজ পর্যায় সংবাদকর্মী আবশ্যক । প্রচারেই প্রসার, সীমিত খরচে আপনার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দেন আমাদের পত্রিকায় । যোগাযোগ: 019 79 91 08 65 ।
সংবাদ শিরনাম :
ঠাকুরগাঁওয়ে পাট সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ী ও স্টেকহোল্ডারদের উদ্বুদ্ধকরণ সভা প্রতিবন্ধি বিদ্যালয়ের স্বীকৃতি, এমপিওভূক্তি করণ সহ বকেয়া বেতনসহ ৫ দফা দাবিতে ঠাকুরগাঁওয়ে চিনিকল শ্রমিকদের প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববনন্ধন মেহেন্দিগঞ্জের উলানিয়া উত্তর ও দক্ষিণে নৌকার প্রচরণায় জনতার ঢল গোলাপ আমিনের কবিতা # আমি ডুবুরি খুঁজে ফিরি স্মৃতির নুড়ি মুজিববর্ষ উপলক্ষে পাথরঘাটা উপজেলা ভূমি অফিসের উদ্যোগে বৃক্ষ রোপণ পাথরঘাটা উপজেলার ভূমি অফিস পরিদর্শনে ডিএলআরসি : এলডি ট্যাক্স সফটওয়ারের ৩য় পর্যায়ের পাইলটিং কার্যক্রম বাস্তবায়নে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি সম্পন্নের নির্দেশ ঠাকুরগাঁওয়ে সরকারী চিকিৎসা সামগ্রী চুরি করে বিক্রি করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা খেল কর্মচারি ঠাকুরগাঁওয়ে ১২০ পিস ইয়াবাসহ এক মাদক ব্যবসায়ি গ্রেফতার মেহেন্দিগঞ্জের উলানিয়ায় এমপি পংকজ নাথ’র নির্দেশে নৌকার কর্মীদের রক্তাক্ত
ঠাকুরগাঁওয়ে ডিসির আশ্বাসে ঘর পাচ্ছেন অন্যের বারান্দায় থাকা সে বৃদ্ধা

ঠাকুরগাঁওয়ে ডিসির আশ্বাসে ঘর পাচ্ছেন অন্যের বারান্দায় থাকা সে বৃদ্ধা

ফিরোজ সুলতান, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি : অবশেষে জেলা প্রশাসকের আশ্বাসে ঘর পাচ্ছেন অন্যের বাড়ির বারান্দায় থাকা সহায় সম্বলহীন ৭০ বছরের বৃদ্ধা মর্জিনা বেগম।

শনিবার (২১ নভেম্বর) সকালে ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসক(ডিসি) ড.কে এম কামরুজ্জামান সেলিম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, বৃদ্ধা মর্জিনা বেগমকে নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন দেখার পরপরই তাকে একটি ঘর তৈরি করে দেয়ার প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।
এর আগে বিভিন্ন অনলাইন ও বেশ কয়েকটি জাতীয় গণমাধ্যমে “বৃষ্টিতে ভেঙে গেছে বৃদ্ধার ঘর, দ্বারে দ্বারে ঘুরে হতাশ মর্জিনা” এ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়।

এদিকে নতুন ঘর তৈরির সংবাদ পেয়ে বৃদ্ধা মর্জিনা অশ্রুসিক্ত চোখে সীমাহীন কৃতজ্ঞতা জানালেন জেলা প্রশাসক ও গণমাধ্যমের প্রতি।
আবেগ আপ্লুত হয়ে কান্না জড়িত কন্ঠে তিনি জানান, এবার বন্যায় আমার মাটির ঘরটি ভেঙ্গে যায়। এ নিয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের দ্বারে দ্বারে ঘুরেছি। হতাশা হয়ে ফিরতে হয়েছে। নতুন ঘর পাওয়ার কথা  ভাবতেও পারিনি । ঝড়-বৃষ্টির সময় অন্যের বাড়িতে বাড়িতে ঘুরে তাদের বারান্দায় থেকেছি। ভয়ে ঘুমাতে পারতাম না। এখন আর সেই ভয় থাকবে না। আমি বুড়ো মানুষ । অন্তত শান্তিতে ঘুমাতে পারবো।

উল্লেখ্য, ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ১৯নং বেগুনবাড়ী ইউনিয়নের নতুন পাড়া গ্রামের মর্জিনা বেগমের  চলতি বছরের ভারী বর্ষণ আর বন্যায় মাটির তৈরি একমাত্র ঘরটি ভেঙে পড়ে যায়। আপাতত তিনি অন্যের বাড়ির বারান্দায় রাত্রিযাপন করছেন। একটা বিধবা ভাতা কার্ডের জন্য জনপ্রতিনিধিদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে হতাশ হয়ে ফিরতে হয়েছিল তাকে।

Print Friendly, PDF & Email

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *